দু’দিনব্যাপী জাতীয় কবিতা উৎসব

আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে দু’দিনব্যাপী ‘৩১তম জাতীয় কবিতা উৎসব’।

জাতীয় কবিতা পরিষদ আয়োজিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি চত্বরে এই উৎসবের এবারের স্লোগান ‘বর্বরতা মানে না কবিতা’।

আগামীকাল, বুধবার সকাল ১০টায় উৎসবের উদ্বোধন করবেন কবি বেলাল চৌধুরী।

জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি কবি ড. মোহাম্মদ সামাদ আজ বাসস’কে এ কথা জানান।

মানবের অপমানের বিরুদ্ধে এবার আন্তর্জাতিক ও দেশীয় প্রেক্ষাপট বিবেচনায় নিয়ে উৎসবের স্লোগান নির্ধারণ করা হয়েছে উল্লেখ করে কবি সামাদ বলেন, কবিতা নিপীড়ন, নির্যাতন ও অত্যাচার মানে না। মানে না দেশের সাথে বেঈমানী ও বিশ্বাস ঘাতকতা। এসব ভেবেই এবার এ স্লোগান নির্ধারণ করা হয়েছে।

দেশের ৬৪টি জেলার কবিগণ উৎসবে উপস্থিত থেকে তাদের নিজ কবিতা পাঠ করবেন জানিয়ে তিনি বলেন, এ জন্য এখন পর্যন্ত নিবন্ধন কার্যক্রম অব্যাহত আছে। আগামীকালও নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে উল্লেখ করে তিনি আরো জানান, এ পর্যন্ত ২ শতাধিক কবি তাদের নাম নিবন্ধনসহ কবিতা জমা দিয়েছেন।

পরিষদের সভাপতি বলেন, শিল্প-সাহিত্যসহ মুক্তিযুদ্ধ এবং দেশ ও সমাজের নানা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য এ বছর জাতীয় কবিতা পরিষদ সম্মাননা দেয়া হবে কবি বেলাল চৌধুরীকে। এছাড়া কবি সাজ্জাদ কাদির পাবেন এ বছরের জাতীয় কবিতা পরিষদ পুরস্কার।

তিনি বলেন, পয়লা ফেব্রুয়ারি কবিতা উৎসবের পাশাপাশি বাংলা একাডেমিতে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭’র উদ্বোধন হবে। গ্রন্থমেলাকে কেন্দ্র করে একাডেমি ৪ দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসবের আয়োজন করেছে। ওই উৎসবের কবি-সাহিত্যিকরাই তাদের এ কবিতা উৎসবে শামিল হচ্ছেন।

এবারের উৎসবে ভারত, সুইডেন, অস্ট্রিয়া, আর্জেন্টিনা, জার্মানি, পুয়ের্তোরিকো ও রাশিয়ার বেশ কয়েকজন স্বনামধন্য কবি উৎসবে উপস্থিত থাকবেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা হলেন- ভারত থেকে কবি আশিস শ্যান্যাল, বীথি চট্টাপাধ্যায়, রাতুল দেব বর্মণ, কাজল চক্রবর্তী, দিলীপ দাস, অংশুমান কর ও প্রাবন্ধিক চিন্ময় গুহ, জার্মানি থেকে কবি ইওনা বুলঘার্ট ও কবি টোরিয়াস বুলঘার্ট, অস্ট্রিয়া থেকে কবি মেনফ্রেড কোবো, সুইডেন থেকে কবি ক্রিস্টিয়ান কার্লসন, পুয়ের্তোরিকো থেকে কবি লুস মারিয়া লোপেজ ও কবি মারিয়া ডি লোস অ্যানজেলেস কামাকো রিভাস ও রাশিয়ার কবি ড. আলেক্সাড্রোভিচ পোগাদাইভ।

LEAVE A REPLY