ফ্রান্সের ল্যুভ জাদুঘরে সন্দেহভাজন হামলাকারী পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের সময় কোন কিছু বলতে অস্বীকার করেছে। তবে সন্দেহভাজন হামলাকারী মিশরের নাগরিক বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত শুক্রবার চাপাতি নিয়ে কয়েকজন সৈন্যকে আক্রমণ করার পর তাকে গুলি করা হয়। সে পাকস্থলিতে গুলিবিদ্ধ ও গুরুতর আহত হয়।

বিচারিক সূত্র জানায়, ল্যুভ জাদুঘরে হামলাকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার অবস্থার উন্নতি হয়েছে। তদন্তকারীরা তাকে দুই দফা জিজ্ঞাসাবাদ করলেও সে কোন কিছু বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

ফোন ও ভিসা পর্যালোচনা করে তার নাম আব্দাদাল্লাহ আল-হামামি বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার বয়স ২৯ বছর। মিশরের নাগরিক হামামি সংযুক্ত আরব-আমিরাতে বসবাস করে। গত ২৬ জানুয়ারি দুবাই থেকে আসা একটি ফ্লাইটে সে বৈধভাবে ফ্রান্সে প্রবেশ করে।

তদন্তকারীদের ধারণা, হামামি চ্যামস এলিসি এভিনিউয়ের কাছে একটি বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া নিয়েছিলেন।
তদন্তের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এক সূত্র জানায়, গত জুনে অনলাইনে এ অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া নিয়েছিল হামামি। অ্যাপার্টমেন্টের মাসিক ভাড়া ১৭০০ ইউরো।

তদন্তকারীরা বলেন, ওই হামলাকারী চাপাতি নিয়ে ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চার সৈন্যের ওপর হামলা করে।

LEAVE A REPLY