চীন নিয়ে অবশেষে নিজের সুর পাল্টে ফেলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ‘এক চীন নীতি’র প্রতি নিজের সমর্থন ব্যক্ত করলেন তিনি। ক্ষমতায় আসার পর গত বৃহস্পতিবার ট্রাম্প প্রথমবারের মতো সরাসরি টেলিফোন করেন চীনের প্রেসিডেন্ট জিনপিংকে। সে সময়েই ট্রাম্প এ কথা বলেন। খবর বিবিসি ও দ্য টেলিগ্রাফের।

এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার রাতে শিকে ফোন দেন ট্রাম্প। এ সময় দুই নেতার মধ্যে অত্যন্ত আন্তরিক কথাবার্তা হয়। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এক চীন নীতি সমর্থন করবেন বলে শিকে জানান। এ সময় দুই নেতাই পরস্পরকে নিজ নিজ দেশ ভ্রমণে আমন্ত্রণ জানান।

‘এক চীন নীতি’র আওতায় দেশটি তাইওয়ানকে নিজের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে মনে করে। দীর্ঘদিন থেকেই মার্কিন প্রশাসনও এ নীতিকে সমর্থন দিয়ে আসছে। কিন্তু ট্রাম্প ক্ষমতা নেওয়ার পরে এ নীতির বিষয়ে বিরোধ দেখা দেয়। রীতি ভেঙে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ফোনে কথা বলায় ক্ষুব্ধ হয় চীন। তবে এ বরফ গলাতে প্রথম উদ্যোগ নেন ট্রাম্প নিজেই। চীনের প্রেসিডেন্টকে চিঠি লিখেন। চিঠিতে দেশটির সঙ্গে ‘গঠনমূলক’ সম্পর্কে অপেক্ষায় আছেন বলেও জানান। এর পরপরই শিকে ফোন দিলেন ট্রাম্প।

LEAVE A REPLY