মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের প্রেসিডেন্টের বাগাড়াম্বরপূর্ণ বক্তব্যের ব্যাপারে শুক্রবার সতর্ক করে বলেছেন, কথা বলার ক্ষেত্রে দেশটির প্রেসিডেন্টকে আরো সতর্ক হতে হবে।

প্রেসিডেন্ট রুহানি ও ট্রাম্প পরস্পরকে হুমকি এবং একে অপরকে সতর্ক থাকতে বলার পর তেহরান ও ওয়াশিংটনের মধ্যে বাগযুদ্ধ তীব্র হয়।

১৯৭৯ সালের ইসলামি বিপ্লবের বার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার রুহানি ইরানের রাজধানী তেহরানে হাজার হাজার মানুষের মিছিলে অংশ নেন। সেখানে দেয়া বক্তব্যে তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করেন।

রুহানি বলেন, ইরান সম্পর্কে হোয়াইট হাউস একের পর এক মিথ্যাচার করে যাচ্ছে। তাদের উচিত ইরানের জনগণের প্রতি সম্মান রেখে কথা বলা। তিনি বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে তারা যে আক্রমণাত্মক ভাষা ব্যবহার করছে, এ জন্য তাদের দুঃখ প্রকাশ করতে বাধ্য করা হবে। কেউ যদি ইরান সরকার বা সশস্ত্র বাহিনীকে হুমকি দেয়, তবে তাদের ইরান সম্পর্কে জেনে সতর্ক হওয়া উচিত।

ইরানের এমন বক্তব্যের জবাবে ট্রাম্প বলেন, এ ধরনের বাগাড়াম্বরপূর্ণ বক্তব্য দেয়ার ক্ষেত্রে ইরানের প্রেসিডেন্টকে আরো সতর্ক থাকতে হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই ইরানের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেন।

এক্ষেত্রে ইরানের ক্ষেপনাস্ত্র পরীক্ষার পর তিনি তেহরানের বিরুদ্ধে অবরোধও আরোপ করেন।

LEAVE A REPLY