সেই যে গেলে, আর ফিরে এলে না পরম!

ভরা জোছনা এসে জীবনে কতোবার যে উঁকি দিলো, তবু তোমায় ছাড়া কারোর প্রতি আকর্ষিত হলাম না। দ্বিপ্রহরের সেই মিষ্টি মিষ্টি দুষ্টুমি কি তোমার মনে আছে? একটু-আধটু কলম-খাতায় আঁকিবুঁকি আর তোমার দিকে আমার হাত চলে যাওয়ার দৃশ্য কি তোমায় আমার কথা মনে করিয়ে দেয় না? তোমায় নিয়ে আমার লেখা ‘তবুও তোমায় ভালোবাসি’ দেখে তোমার সেই যে সুন্দর মুখখানি লাল হয়ে গিয়েছিলো, আমার প্রতি ক্ষোভে এবং রাগে; আর তোমার আম্মুর আমায় অন্যরকম ছেলে ভাবার অভিমানী দৃষ্টি কি আজও আমায় তোমার কাছে টানে না!

অলস দুপুরে আম মাখা আর একসঙ্গে জলপাই খাওয়ার সেই স্মৃতি কি তোমায় জাগিয়ে তোলে না পুরোনো প্রেমের আবেশে! নাকি সব জেনে-বুঝেও তুমি আমার থেকে থাকছো দূরে; দিচ্ছো আমায় বহুরকম কষ্ট। এসব সইতে পারার হৃদয় যে আমার নেই—এ কথা কি বোঝো না পরম! একলা ঘরে সেসব কথা কি তোমায় হাতড়াতে সাহস জোগায় না! নাকি সব ভুলে উদাসী হয়ে ফেলে গেছো নিজেকে। জীবনের মায়া ভুলে এই আমার মতোই চেয়ে আছো আমার মতো কারোর জন্য কিংবা কেবল আমার জন্যই; নাকি বলতে পারছো না—আজও আমায় তুমি ভালোবাসো!

এই স্নিগ্ধহৃদয় একটু বেড়াতে চায়; ঘুরতে চায় তোমার সেই হাতে হাত রেখে গভীর আবেশে। তোমার কি ইচ্ছে হয় না এর কিছুই! বাদলা দিনের সেই যে রিকশার হুট নামানো আর একে-অন্যকে জড়িয়ে ধরার দৃশ্য আমায় কি তোমার কাছে টানে না! বিয়ে না করে অসীম কুমার-কুমারী থাকবো দুজনে—বলে সেই যে গগনবিদারী হাসি, বাস্তবেই কি অমন হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছো! কতো প্রশ্ন জাগে এই মনে তোমায় ঘিরে।

পরম! তোমার খোঁজে বেরিয়েছি সেই বিংশ শতাব্দ ধরে। তবু পাইনি কোথাও তোমার দেখা। সেই সে অপরূপ সাজে আমায় চটকদার করে তুলে চলে গেলে, আর ফেরার নাম নেই। ভালোবাসার বিনি-সুতোয় আর ধরেনি টান। খোঁজ করো নি অসহ্য যন্ত্রণায় জ্বলে থাকা এই আমায়। কী জানি, কী ভুলে এভাবে দিনযাপন করছো। আর কোথাই বা আছো এবং কেমন করে? কতো কথা তোমায় বলার ছিলো গো! কিন্তু সেসবের কিছুই বলা হয়নি কোনোদিন সেভাবে, যেভাবে ছিলো বলার। এর আগেই মিশে গেলে দূর অজানায়। ভেবে নিয়েছিলে আমি তোমার ক্ষতিসাধনে আবির্ভূত হয়েছি। কিন্তু সত্যি জানো গো প্রিয় ‘আজও তোমায় ভালোবাসি’৷

এটুকুন আমার জানান দেয়ার ছিলো তোমায়। কিন্তু তুমি আমায় ভুল বুঝে সেই যে বিতাড়িত করলে, তোমার ঠিকানায় পত্র লিখলাম বলে সেই যে প্রেমের ঘরটি ছেড়ে চলে গেলে; আর নিলে না এই পড়ে থাকা আমার খোঁজ। পথিমধ্যে কতজনেরে দেখে মাঝেমধ্যে ভেবে নিয়েছি তোমায়। কিন্তু না, কাছে গিয়ে সেই ভুলের হোঁচট খেয়েছি। আমার স্বপ্নরাজ্যে তুমি জড়িয়ে ছিলে, শুধু তুমিই। আজও আছো। আজও আমি ভুলতে পারিনি তোমায়৷

তোমায় পাওয়ার আশায় কতো প্রহর গুনেছি; থেকেছি কতো পথ চেয়ে! এই আসো, আসো করে কতো মাস, কতো বছর যে পেরিয়েছি; কিন্তু তোমার দেখা মেলেনি। দাও নি ধরা এই অপেক্ষমাণ হৃদয়ে। অতীত প্রেম ভুলে আমায় ছেড়ে দূরে চলে গেলেও পরম, আমি তোমায় ভুলিনি। কী করে তোমায় ভুলে থাকি বলো!তুমি যে আমারই পরম৷

LEAVE A REPLY