আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান ভাষা দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার এ উপলক্ষে দিবসের প্রথম প্রহর থেকেই নানা কর্মসূচি পালন করা হয়।
দিবসের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছে রাবি প্রশাসন। এরপর একে একে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সামজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। সকালে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনসহ অন্যান্য ভবনগুলোতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।
সকাল ৭টায় আবাসিক হল, অফিসার সমিতি, শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা, সহায়ক কর্মচারী সমিতি, সাধারণ কর্মচারী ইউনিয়ন, পরিবহন টেকনিক্যাল কর্মচারী সমিতি, রাবি মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড ও অন্যান্য সংগঠনসমূহ প্রভাত ফেরী ও শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। সকাল সাড়ে ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, রাবি মহিলা ক্লাব, রাবি স্কুল প্রভাতফেরী ও শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। সকাল ৮টায় শেখ রাসেল মডেল স্কুল প্রভাতফেরী ও শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। সকাল সাড়ে ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনের পশ্চিম চত্বরে আলোচনা সভা এবং সকাল ১০টায় সিনেট ভবন চত্বরে চিত্রাঙ্কন ও বাংলা হস্তলিপি প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়। রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটি তার কার্যালয় রাকসু ভবন থেকে সকাল ০৯ টায় একটি র‌্যালি বের করে ক্যাম্পাসের প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এরপর সেখানে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
এছাড়াও সকাল সাড়ে ১০টায় সহায়ক কর্মচারী সমিতি ও পরিবহন টেকনিক্যাল কর্মচারী সমিতি এবং সাধারণ কর্মচারী ইউনিয়নের নিজ নিজ কার্যালয়ে আলোচনা সভা, একই সময়ে কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, রাবি ইউনিট কমান্ডের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাদ জোহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে কোরআনখানি ও বিশেষ মোনাজাত এবং সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।
এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ স্মৃতি সংগ্রশালা সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবাস বাংলাদেশ মাঠে বিকেল ৫ টায় শহীদ ড. জোহা’র আত্মত্যাগ ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে তার প্রভাব নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ বকুল। এছাড়াও বিকেলে রাবি সাংস্কৃতিক জোট বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।
একুশে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। বাঙ্গালি জাতির ভাষা আন্দোলনের চিহ্ন স্বরূপ আজকের এই দিনটি সারাদেশে পালন করা হয় যথাযোগ্য মর্যাদায়। ১৯৫২ সালের এই দিনে বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার দাবিতে আন্দোলনরতদের ওপর পাকিস্তান সেনাদের গুলিতে শহীদ হন বাংলার বীর তরুণেরা। ১৯৯৯ সালে জাতিসংঘ কর্তৃক ঘোষণার পর থেকেই প্রতিবছর দিবসটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

LEAVE A REPLY