প্রথম সেশনে এগিয়ে ছিল অস্ট্রেলিয়াই। ডেভিড ওয়ার্নারকে হারিয়েও। কিন্তু পরের দুই সেশনে দুর্দান্ত প্রতাপেই ম্যাচে ফিরেছে ভারত। স্পিন-বিষে নীল হয়ে সফরকারীরা হারিয়ে ফেলেছে ৯ উইকেট। মিচেল স্টার্কের দুর্দান্ত আক্রমণে অলআউট না হলেও প্রথম দিনে মাত্র ২৫৬ রান করেছে সফরকারীরা।
২৫৬ রানও হওয়ার কথা না। ২০৫ রানেই যেখানে নয় নম্বর ব্যাটসম্যান ফিরেছিলেন, সেখানে ২৫৬ রানে কিন্তু খুশি হতেই পারে অস্ট্রেলিয়া। স্টার্কের অলরাউন্ডার সত্তাটা জেগে ওঠাতেই তো অস্ট্রেলিয়ার এই রান। এগারো নম্বর ব্যাটসম্যান জশ হ্যাজলউডকে সঙ্গে নিয়ে দারুণ লড়লেন স্টার্ক। ৫১ রানের জুটি গড়লেন। জুটিতে মাত্র ১ রান জশ হ্যাজলউডের! বাকিটা চার-ছক্কা ও বুদ্ধিদীপ্ত রানিং বিটুইন দ্য উইকেটে মহা সংকট থেকে দলকে উদ্ধারের চেষ্টা করলেন। ৫৮ বলে ৫৭ রানে অপরাজিত আছেন স্টার্ক, মেরেছেন ৫টি চার ও ৩ ছক্কা।
অস্ট্রেলিয়া ইনিংসে স্টার্ক ছাড়া পঞ্চাশ পেরিয়েছেন আর মাত্র একজন। ওপেনার ম্যাথু রেনশ, পেটের পীড়ায় একবার মাঠ ছেড়ে যাওয়া রেনশ উপমহাদেশ-অভিষেকে করেছেন ৬৮ রান। রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে তাঁর ফেরাটাই হওয়াটাই সূচনা করে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের দ্বিতীয় ধসের। ৫ উইকেটে ১৯০ থেকে খুব দ্রুতই ৯ উইকেটে ২০৫ হয়ে যায় তারা। অথচ ম্যাচের শুরুটা কী দুর্দান্তই না হয়েছিল সফরকারীদের। দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এনে দিয়েছিলেন ৮২ রান। সেই জায়গা থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া প্রথম দিন শেষে প্রায় অলআউট হওয়ার পথেই। অভিষেকের পর এই প্রথম পঞ্চাশ না করেই আউট হয়েছেন পিটার হ্যান্ডসকম্ব—মাত্র ২২ রানে।
তবু ভারত এগিয়ে আছে, এ কথাটা বলা যাচ্ছে না কোনোভাবেই। এ এমনই এক পিচ, কোন রান যে কম আর কোন রান যে নিরাপদ সেটা দুই দলের ব্যাটিং না দেখে ভবিষ্যদ্বাণী করা অসম্ভব। উইকেটটা কেমন? ভারতের পক্ষে ৮০ টেস্ট খেলা, এর চেয়েও দ্বিগুণের বেশি টেস্ট ম্যাচ দেখা রবি শাস্ত্রীই বলে দিয়েছেন ম্যাচের আগে, ‘ভারতের মাটিতে এমন উইকেট আমি কখনো দেখিনি। আমি স্পিনিং উইকেট দেখেছি কিন্তু এমন উইকেট-কখনো না!’ সবুজের আভা থাকলেও ওটা যে শুধু চোখের সান্ত্বনা সেটা তো বোঝা গেছে দ্বিতীয় ওভারেই অশ্বিনের বল হাতে নেওয়াতেই! স্টিভ স্মিথকে ফিরিয়ে দিয়ে ইনিংসের মাঝপথের ওই ধসটাও শুরু করেছিলেন অশ্বিন।
তবে দিনের শেষে সেরা বোলার কিন্তু অশ্বিন কিংবা রবীন্দ্র জাদেজা নন। স্পিনারদের আড়ালে ৩২ রানে ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন উমেশ যাদব।

LEAVE A REPLY