সৌদি আরবের বাদশা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ ১ হাজার ৫০০ সফর সঙ্গী নিয়ে নয়দিনের সফরে ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন। এ সফরে আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র হিসেবে তার সঙ্গে রয়েছে ৫০৬ টন ওজনের লাগেজ ও দুটি বড় লিমোজিন গাড়ি। দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট এ খবর জানিয়েছে। চলতি সপ্তাহেই ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন বাদশা সালমান।

সবচেয়ে জনবহুল মুসলিম দেশটিতে গত ৪৬ বছরের মধ্যে এটিই কোনো সৌদি বাদশার প্রথম সফর। দুই দেশের মধ্যকার অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের বিষয়টিকে সামনে রেখে সৌদি বাদশা পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়ে এই সফর করতে যাচ্ছেন। ইন্দোনেশিয়ার সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বাদশা তার সফরকালে দুটি মার্সিডিস বেঞ্জ এস৬০০ লিমুজিন এবং দুটি ইলেকট্রিক লিফটসহ ৫০৬ টন ওজনের মালামাল নিয়ে আসছেন।

এয়ারফ্রেইট প্রতিষ্ঠান পিটি জাসা আংকাসা সেমেস্টার কর্মকর্তা আদজি গুনাওয়ান সংবাদ সংস্থা আনতারাকে বলেছেন, সৌদি বাদশার মালপত্র পরিবহনের জন্য তাদের প্রতিষ্ঠানকে নিয়োগ করা হয়েছে। এরই মধ্যে ওই মালপত্র ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছেছে। আদজি জানান, সৌদি বাদশার লাগেজ সামলানোর জন্য ৫৭২ জন শ্রমিককে নিয়োগ করেছে তাদের প্রতিষ্ঠান। সৌদি বাদশা সাড়ম্বরে সফর করার জন্য বহুল পরিচিত। ২০১৫ সালে সালমান ওয়াশিংটন সফর করার সময় জর্জটাউনের পুরো ফোর সিজন হোটেল পুরোটাই ভাড়া করেছিলেন। ওই এলাকার সবচেয়ে বিলাসবহুল হোটেলটিতে ২২২টি রুম রয়েছে।

একই বছর সৌদি বাদশা এক হাজার সঙ্গীর বহর নিয়ে ফ্রান্সের রিভেরিয়া সৈকত ভ্রমণ করেন। এ উপলক্ষে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ওই সৈকত এলাকায় তিনদিনের জন্য অন্যদের প্রবেশ বন্ধ করে দেয়া হয়।

এ সপ্তাহের সফরেও বহুসংখ্যক সফরসঙ্গী নিয়ে ইন্দোনেশিয়া যাচ্ছেন সৌদি বাদশা। জাকার্তা পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাদশাহর সফরসঙ্গীদের মধ্যে ১০ জন মন্ত্রী, ২৫ জন যুবরাজ এবং অন্তত ১০০ নিরাপত্তা রক্ষীসহ ১ হাজার ৫০০ সফরসঙ্গী রয়েছেন। আইএস প্রতিরোধে ইন্দোনেশিয়ার সঙ্গে কাজ করবেন সৌদি বাদশা। ইন্দোনেশিয়ায় সফরকালে বাদশা সালমান বিন আবুল আজিজ আল সৌদ জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের বিরুদ্ধে লড়াইসহ ১০টি বিষয়ে দেশটির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইন্দোনেশিয়ায় নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ওসামা মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আলশুয়াইবি মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ কথা জানিয়েছেন।

১ মার্চ থেকে ১২ মার্চের মধ্যে বাদশা সালমানের ইন্দোনেশিয়া সফরের কথা রয়েছে। রোববার শুরু করা মাসব্যাপী এশিয়া সফরের অংশ হিসেবে তিনি দেশটিতে যাবেন। বিনিয়োগ সম্ভাবনা খতিয়ে দেখতে ও পারস্পরিক ঘনিষ্ঠতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে এশিয়া সফর শুরু করেছেন বাদশা সালমান। সফরের অংশ হিসেবে বর্তমানে ইন্দোনেশিয়ার প্রতিবেশী মালয়েশিয়ায় আছেন তিনি। সৌদি রাষ্ট্রদূত আলশুয়াইবি জানান, ইন্দোনেশিয়ার সঙ্গে তাদের অনেক ধরনের সহযোগিতার সম্পর্ক গড়ে তোলার ইচ্ছা থাকলেও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হবে সন্ত্রাসবিরোধী চুক্তি। এই চুক্তির আওতায় জার্কাতা ও রিয়াদ আইএসকে পরাজিত করতে কাজ করা সম্ভব হবে।

LEAVE A REPLY