খাগড়াছড়িতে কলেজ ছাত্রী ইতি চাকমার হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে মাঠে নেমেছে সিআইডি। বৃহস্পতিবার দুপুরে সিআইডির চট্টগ্রাম বিভাগের ইন্সপেক্টর মিতশ্রী বড়ুয়ার নেতৃত্ব চার সদস্যের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে হত্যার আলামত সংগ্রহ করেছেন।
গত সোমবার(২৭ ফেব্রুয়ারী) রাতে খাগড়াছড়ি জেলা শহরের আরামবাগ এলাকায় ভগ্নিপতি অটল চাকমার ভাড়া বাসায় খুন হয় খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ইতি চাকমা। এ ঘটনায় নিহত ইতি চাকমার বড় বোন জোনাকি চাকমা বাদী হয়ে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে ইতির ভগ্নিপতি অটল চাকমার দেয়া তথ্যের সূত্র ধরে মঙ্গলবার রাতে অমর কান্তি চাকমা ওরফে গণতোষ চাকমা নামে সন্দেহজনক একজনকে আটক করে পুলিশ।
ইতিমধ্যে মামলার তদন্দে বেশ অগ্রগতি হয়েছে বলে জানিয়েছে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মাসুদ আলম। এছাড়া আটক অমর কান্তি চাকমার ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। আদালতের অনুমতি পেলে তাকে রিমান্ডে নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
সিআইডি’র তদন্তকারী দলের সাথে খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: সালাহউদ্দিন, খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY