অস্ত্র দিয়ে অন্যকে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগে ফেনীতে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
গ্রেপ্তার মোশাররফ হোসেন ওরফে সাদ্দামের (২৫) বাড়ি ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুর ইউনিয়নের হাসান গণিপুর গ্রামে। তিনি এলাকায় যুবলীগের কর্মী ও সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। এ ঘটনায় মোশাররফের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা হয়েছে।
ফেনী ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহমেদ নাসির উদ্দিন মোহাম্মদ বলেন, এক ব্যক্তির কাছ থেকে খবর পেয়ে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল গত শনিবার রাতে হাসান গণিপুর গ্রামে অভিযান চালায়। পরে যুবলীগের স্থানীয় নেতা মো. ইসরাফিলের বসতঘরের পাশের রান্নাঘর থেকে ১টি এলজি ও ১০টি গুলি উদ্ধার করা হয়।
ডিবি সূত্র জানায়, মো. ইসরাফিলের বসতঘরের পাশে অস্ত্র থাকার ব্যাপারে তথ্য দিয়েছিলেন মোশাররফ হোসেন। অস্ত্র উদ্ধারের পর মোশাররফকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তিনি অস্ত্র দিয়ে ইসরাফিলকে ফাঁসানোর চেষ্টার কথা স্বীকার করেন। পরে মোশাররফকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে দাগনভূঞা থানায় অস্ত্র মামলা করা হয়েছে।
ডিবির ওসি আহমেদ নাসির উদ্দিন মোহাম্মদ বলেন, গতকাল সোমবার মোশাররফকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজাতে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, মোশাররফকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে। আদালত মঙ্গলবার রিমান্ড আবেদনের শুনানির দিন ধার্য করেছেন।
দাগনভূঞা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসলাম উদ্দিন অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় মোশাররফের বিরুদ্ধে মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY