কুমিল্লার বুড়িচংয়ে ডিবি পুলিশের সঙ্গে ডাকাতদলের গুলি বিনিময়ে মোস্তফা (৩৩) নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছে। এ সময় গুলিতে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আলম মামুন এবং পুলিশ কনস্টেবল দয়ালকান্দি আহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে বুড়িচং উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের লড়িবাগ রেলগেটের অদূরে রাস্তায় এ গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে বুড়িচংয়ে গোয়েন্দা শাখার এসআই শাহ কামাল আকন্দ জানান, ওই সড়কে দীর্ঘদিন ধরে রশি ফেলে ডাকাতি করে আসছিল একটি সংঘবদ্ধ সশস্ত্র ডাকাতদল। গত ২১ মার্চ রাতে ওইস্থানে ডাকাতদলের ছুরিকাঘাতে নিহত হন জেলার দেবিদ্বারের জুয়েলারি ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ।

এ ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া দুই ডাকাত মঙ্গলবার বিকেলে তাদের সহযোগীদের নাম প্রকাশ করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। রাতে ডাকাতদলের অন্যান্য সদস্যদের ধরতে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আলম মামুনের নেতৃত্বে ডিবির একটি দল লড়িবাগ রেললাইনের পাশের রাস্তায় পৌঁছলে ডাকাতদল রাস্তায় রশি ফেলে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে গুলিবিব্ধ হয়ে মোস্তফা নামের এক ডাকাত মারাত্মক আহত হন। তাকে কুমেক হাসপাতালে নেওয়ার পর রাত পৌনে ১টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ দিকে ডাকাতদলের গুলিতে আহত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আলম মামুন এবং পুলিশ কনস্টেবল দয়ালকান্দিকে জেলা পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY