ঢাকায় জমে উঠেছে পাটপণ্যের প্রদর্শনী। রাজধানীর কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় এ প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানো এবং পাটজাত পণ্য ব্যবহারে উৎসাহিত করা কর্মসূচির উদ্দেশ্য।

শনিবার মেলা শেষ হওয়ার কথা থাকলেও দর্শকদের আগ্রহের কারণে মেলার মেয়াদ আরও ২ দিন বাড়ানো হয়েছে। ফলে আগামীকাল সোমবার মেলা শেষ হচ্ছে।

জানা গেছে, পাটপণ্যের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে ৬ মার্চ জাতীয় পাট দিবস ঘোষণা করেছে সরকার। এ ছাড়া জনগণের কাছে সম্ভাবনাময় এ পণ্যটিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে এই পাটপণ্য প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

শনিবার সরেজমিন দেখা গেছে, বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ পাটের তৈরি নানা ধরনের পণ্য দেখতে মেলায় ভিড় করছেন। দর্শনার্থীদের মধ্যে তরুণদের সংখ্যাই বেশি। দর্শনার্থীদের পাশাপাশি রয়েছেন ক্রেতাসাধারণও। আর দর্শক ও ক্রেতাদের উপস্থিতিতে আয়োজকরাও বেশ খুশি।

আয়োজকরা জানান, বিশাল সম্ভাবনাময় এ পণ্যটি মানুষের সামনে তুলে ধরতে পারলে দেশে বড় ধরনের বাজার সৃষ্টি করা যাবে। এতে একদিকে নতুন কর্মসংস্থান তৈরি হবে অপরদিকে কৃষকরা ন্যায্যমূল্য পাবেন। অর্থাৎ পণ্যটিকে ঘিরে কৃষি ও শিল্প উভয় খাতই লাভবান হবে।

জানা গেছে, একসময় দেশের রফতানি আয়ের বড় অংশ ছিল পাটের ওপর নির্ভরশীল। এ কারণেই পাটকে সোনালী আঁশ বলা হতো। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের কারণে সম্ভাবনাময় এ শিল্প হারিয়ে গেছে।