রাজধানীতে এক নাবালিকা গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে তাঁর এক নিকটাত্মীয়ের(৪৪) বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। পুলিশ গৃহবধূর ওই নিকটাত্মীয়কে গ্রেপ্তার করার পর আজ মঙ্গলবার ঢাকার একটি আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। ওই গৃহবধূ আদালতে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জবানবন্দি দিয়েছেন।
১১ ও ১২ মার্চ ওই গৃহবধূর স্বামীর অনুপস্থিতিতে তাঁর ওই নিকটাত্মীয় হত্যার হুমকি দিয়ে ধর্ষণ করেন বলে মামলায় অভিযোগ করেছেন গৃহবধূর মা।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ তাঁর স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়িকে নিয়ে রাজধানীতে বসবাস করেন। এক বছর আগে তাঁর বিয়ে হয়েছে। শাশুড়ি এক মাস আগে তাঁর গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে যান। তাঁর স্বামী কাজ করেন একটি ওয়াশিং কারখানায়। ঘটনার দুই দিনই রাতে তাঁর স্বামী কারখানায় অবস্থান করেন। এ সময় গৃহবধূর নিকটাত্মীয় বটি দিয়ে হত্যার হুমকি দিয়ে তাঁকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনা কাউকে বললে মেরে ফেলবেন বলেও ওই নিকটাত্মীয় হুমকি দেন।

আদালতে জমা দেওয়া পুলিশ প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, এ যৌন নির্যাতনের কথা গৃহবধূ তাঁর স্বামীকে বললে উল্টো তাঁর স্বামী বলে দেন, তিনি আর ওই গৃহবধূকে নিয়ে সংসার করবেন না। পরে গৃহবধূর মা বাদী হয়ে ওই অভিযুক্ত ধর্ষণকারী ব্যক্তির বিরুদ্ধে গতকাল সোমবার মামলা করেন।

গৃহবধূর ওই নিকটাত্মীয়কে আদালতে হাজির করে পুলিশ বলেছেন, তিনি খারাপ চরিত্রের লোক। জামিন পেলে তদন্তে বিঘ্ন ঘটাতে পারেন।