প্রথম টেস্টে থেকেই উইকেট খরায় ভুগছিলেন সাকিব আল হাসান। ২ ইনিংসে নিয়েছিলেন মাত্র ৩ উইকেট। বড় স্কোরও করতে পারেননি।  এ জন্য টেস্টে বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডারের তকমাটা পেয়ে ৫ দিনের মধ্যেই তা হারাতে হয়। শততম টেস্টের প্রথম দুই সেশনেও উইকেটশূন্য তিনি। বাকি দুই স্পিনার নিয়েছে ৩ উইকেট। অবশেষে উইকেটের মুখ দেখলেন সাকিব। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকাভিলাকে বোল্ড করে স্বাগতিকদের ষষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটালেন তিনি।

৬০ রান নিয়ে ব্যাট করতে থাকা দিনেশ চান্দিমালের সঙ্গে ভালোই জমিয়েছিলেন ডিকাভিলা। কিছুটা আক্রমণাত্বক খেলছিলেন। সাকিবের বলে বোল্ড হয়ে যাওয়ার আগে ৩৭ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ৩৪ রান করেন তিনি। ডিকাভিলার বিদায়ের পর স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের তালিকা বলতে গেলে শেষ হলো।

এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কার দুর্গে প্রথম আঘাত হানেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান।  তার বলে করুণারত্নের ব্যাটের কানায় লেগে গালিতে উড়ে যায় বল। গালিতে দারুণ ক্যাচ নেন মিরাজ। আউট হওয়ার আগে তিনি ৩২ বলে ৭ রান করেন। এরপর পরপর দুই ওভারে জোড়া আঘাত হানেন তরুণ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। তার ঘূর্ণি-বলে বিভ্রান্ত হয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হলেন প্রথম টেস্টের ১৯৪ রান করা কুশল মেন্ডিস।

পরের ওভারে এসে আবারও শিকার ধরলেন তিনি। এবার সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন ওপেনার উপল থারাঙ্গা (১১)। ২৪ রানে দ্বিতীয় এবং ৩৫ রানে তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটে শ্রীলঙ্কার। এর আগে অবশ্য একবার রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান থারাঙ্গা। তিন স্পিনারের মধ্যে কেবল সাকিব আল হাসান এখনও উইকেটশুন্য আছেন।

লঙ্কানদের চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটান পেসার শুভাশিস রায়।  বলে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন অ্যাশলে গুণারত্নে (১৩)। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার রান ৫ উইকেটে ১৪৩। রিভিউ নিয়ে টিকে যাওয়া চান্দিমাল খেলছেন ৫৩ রানে। তার নতুন সঙ্গী হয়েছেন নিরোশান ডিকাভিলা।

৭০ রানে ৪ উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কা লাঞ্চের পর প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিল। দলে সুযোগ পাওয়া ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে নিয়ে ৬৬ রানের জুটি গড়েছিলেন দিনেশ চান্দিমাল। সেই জুটি ভেঙে বাংলাদেশকে আনন্দের উপলক্ষ এনে দেন দলে সুযোগ পাওয়া তাইজুল ইসলাম। তাইজুলের ঘূর্ণিতে সরাসরি বোল্ড হয়ে যান ধনঞ্জয় ডি সিলভা (৩৪)। শর্ট বল ভেবে লেংথ বলটি পুল করার চেষ্টা করেছিলেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। কিন্তু ততটা শর্ট ছিল না বলটি। একটু স্কিড করে বল আঘাত করে স্ট্যাম্পে।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার রান ৬ উইকেটে ১৮৩।