একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার আসামি কিশোরগঞ্জের সৈয়দ মো. হুসাইন ও মোহাম্মদ মোসলেম প্রধানের বিরুদ্ধে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

তাদের বিরুদ্ধে আনা হত্যা, গণহত্যা, অগ্নিসংযোগসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের ৬টি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই রায় ঘোষণা করা হয়।

বুধবার বেলা ১২টার দিকে ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করেন। এর আগে বেলা ১১টায়  রায় পড়া শুরু করেন ট্রাইব্যুনাল।

আজ বুধবার সকাল দশটা ৫০ মিনিট থেকে রায় দেওয়া হচ্ছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে সূচনা বক্তব্যের পর বিচারিক প্যানেলের সদস্য বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলাম রায়ের প্রথম অংশ পড়েছেন।

দ্বিতীয় অংশ পড়বেন বিচারিক প্যানেলের অন্য সদস্য বিচারপতি মো. সোহরাওয়ারদী। সবশেষে রায়ের শেষ বা সাজার অংশ ঘোষণা করেন ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান।

আদালতে ওই দিন রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর তুরিন আফরোজ। আসামিদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার পালোয়ান।

সকাল সাড়ে নয়টার দিকে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে থাকা আসামি মোসলেম প্রধানকে ট্রাইব্যুনালে এনে হাজতখানায় রাখা হয়। পৌনে এগারটার দিকে তাকে তোলা হয় এজলাসকক্ষের আসামির কাঠগড়ায়। প্রধান আসামি হুসাইন পলাতক। একই মামলার ওই দুই আসামির বিরুদ্ধে হত্যা-গণহত্যা, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, আটক, অপহরণ ও নির্যাতনের ছয়টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ৬২ জনকে হত্যা-গণহত্যা, ১১ জনকে অপহরণ, আটক ও নির্যাতন এবং দুইশ’ ৫০টি বাড়ি-ঘরে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ।