‘২০২১ সাল নাগাদ বিদ্যুৎ খাত প্রিপেইড মিটারের আওতায় আসবে’

সরকার ২০২১ সাল নাগাদ গোটা বিদ্যুৎ খাতকে প্রিপেইড মিটারিং ব্যবস্থার আওতায় নিয়ে আসবে। এর ফলে বিদ্যুৎ সম্পদের ব্যবহারে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে। আজ শনিবার এ তথ্য জানান বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

নসরুল হামিদ বলেন, বিদ্যুতের ব্যবহার ও বিতরণে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে আমরা রেগুলার বিলিং মিটার সিস্টেমের বিপরীতে দেশে প্রিপেইড মিটার চালুর পরিকল্পনা নিয়েছি।

তিনি বলেন, বিদ্যুৎ খাতে প্রিপেইড মিটার স্থাপন বর্তমান বিলিং সিস্টেম থেকে গ্রাহকদের মুক্তি দিতে ব্যাপক সহায়ক হবে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, বিপিডিবি পর্যায়ক্রমে দেশব্যাপী ২ কোটির বেশি প্রিপেইড মিটার বসাবে। এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বন্দর নগরীতে ৭ লাখের বেশি প্রিপেইড মিটার স্থাপনের মাধ্যমে কার্যক্রম শুরু হবে। গ্রাহকরা নিকটবর্তী ভেন্ডিং স্টেশন থেকে তাদের প্রিপেইড কার্ড রিচার্জ কারতে পারবেন এবং তারা স্টেশন থেকে তাদের বিদ্যুৎ ব্যবহারের পরিমাণ ও অবশিষ্ট ব্যালেন্স জানতে পারবেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রিপেইড মিটারিং সিস্টেম নির্বিঘ্নে বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করবে।

এর আগে বিপিডিবি প্রি-পেমেন্ট মিটারিং প্রজেক্ট ফর ডিস্টিবিউশন সাউদার্ন জোন (চট্টগ্রাম পর্যায়-১) প্রকল্পের বাস্তবায়নে চীনের কোম্পানি হেক্সিং ইলেকট্রিক্যাল কোম্পানি লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি সাক্ষর করেছে।