এক ট্রফির ভাগীদার তিন মেসি!

বাবা মেসির সঙ্গে দুই পুত্র থিয়াগো ও মাতেও। আর তাদের মা আন্তোনেলা। ছবি: এএফপি
লিওনেল মেসি নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, এবারই ট্রেবল জেতা দরকার ছিল সবচেয়ে বেশি। থিয়াগো মেসির বয়স ৫ বছর হয়ে গেছে। মাতেও মেসিও আড়াই বছরের প্রায়। কাল কোপা ডেল রের ফাইনাল জেতার পর বাবার সঙ্গে মাকে নিয়ে যোগ দিল দুই জুনিয়র মেসিও। ট্রফি নিয়ে কিছুটা টানাটানিও হলো। বাবা মিষ্টি হাসলেন। বুঝতে পারলেন, তিন মেসির জন্য একটা ট্রফি সত্যিই খুব সামান্য!
আলাভেসকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে টানা তৃতীয় কাপ শিরোপা নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা। খেলা শেষ হয়ে গিয়েছিল প্রথমার্ধেই। ৩০ মিনিটে মেসির প্রথম গোল তিন মিনিটের মাথায় শোধ করে দিয়ে আলাভেস একটা উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা করেছিল বটে; কিন্তু প্রথমার্ধের একদম শেষ প্রান্তে নেইমার ও প্যাকো আলকাসারের গোল দ্বিতীয়ার্ধকে প্রায় আনুষ্ঠানিকতা বানিয়ে ফেলে।
মুহূর্তটা ক্যামেরাবন্দী করতে ভোলেননি আলোকচিত্রীরা। ছবি: এএফপিমুহূর্তটা ক্যামেরাবন্দী করতে ভোলেননি আলোকচিত্রীরা। ছবি: এএফপি
পুরো ম্যাচ ছিল মেসিময়। সেমিফাইনালে লুইস সুয়ারেজ আর সার্জি রবার্তো দুজনই লাল কার্ড দেখেছিলেন। ফলে দুজনকে ছাড়াই ম্যাচ শুরু করতে হয়েছিল বার্সেলোনাকে। ১১ মিনিটের মাথায় চোট নিয়ে বেরিয়ে যান হাভিয়ের মাসচেরানো। এই মানসিক চাপের সঙ্গে আলাভেসও শুরুর দিকে জাঁকিয়ে বসতে চেয়েছিল। এই পুঁচকে দলটার কাছে মৌসুমের শুরুতে লিগে নিজেদের মাঠে ২-১ গোলে হেরেছিল বার্সা। শেষ পর্যন্ত লিগ শিরোপা যে ৩ পয়েন্টের ব্যবধানে হারাতে হলো, এর জন্য আলাভেসই তো দায়ী!
থিয়াগোর হাতে খেলনা রেপ্লিকা ট্রফি। মাতেও অবশ্য সুযোগ বুঝে আদায় করে নিল বাবার চুমু! ছবি: এএফপিথিয়াগোর হাতে খেলনা রেপ্লিকা ট্রফি। মাতেও অবশ্য সুযোগ বুঝে আদায় করে নিল বাবার চুমু! ছবি: এএফপি
লিগে ফিরতি লড়াইয়ে বার্সা অবশ্য আলাভেসকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে প্রতিশোধ নিয়েছিল। কালকের ম্যাচটা শেষ দিকে অমন একতরফাই হলো। বিদায়ী কোচ লুইস এনরিকেকে একটা বড় উপহার দিতে চেয়েছিলেন, মেসির মধ্যে সেই তাড়না ছিল স্পষ্ট। গোল করে, করিয়ে এনরিকেকে বিদায় জানালেন। লিগ, চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে না পারলেও একেবারে খালি হাতে যেতে হলো না কোচকে।
তবে মাঠের খেলোয়াড় মেসিই তো শেষ নয়; মানুষ মেসিটা যে তার চেয়েও বড়। শেষের বাঁশি বাজার পর ক্ষণিকের উদ্‌যাপন করে মেসি আগে খোঁজ নিলেন স্বদেশি মাসচেরানোর। কী অবস্থা তাঁর চোটের। এরপর হবু স্ত্রী আন্তোনেলা রোকুজ্জো দুই পুত্রকে নিয়ে এলেন মাঠে। তাদের সঙ্গে চলল কিছুক্ষণের খুনসুটি। কালকের ম্যাচের সবচেয়ে সেরা মুহূর্ত ধরা পড়ল ক্যামেরায়। বাবা মেসি যে খেলোয়াড় মেসির চেয়েও ভালো!
আসল ট্রফি নিয়ে উদ্‌যাপনে এমএসএনের সঙ্গী হলো তাঁদের চার পুত্র ও এক কন্যাও। ছবি: এএফপিআসল ট্রফি নিয়ে উদ্‌যাপনে এমএসএনের সঙ্গী হলো তাঁদের চার পুত্র ও এক কন্যাও। ছবি: এএফপি
এরপর দুই বন্ধু নেইমারের আর লুইস সুয়ারেজের সঙ্গেও ট্রফি নিয়ে উদ্‌যাপন করলেন। সে সময় এমএসএনের সঙ্গী হলো তাঁদের চার পুত্র ও এক কন্যাও।
কিন্তু ওই যে ট্রফি একটাই, মাঠে মেসি তিনজন! ২০১৮-র মৌসুম শেষে মেসি ট্রফির সংখ্যাটা কমপক্ষে তিনে রাখতে চাইবেন নিশ্চয়ই। এর সঙ্গে যদি যুক্ত হয় বিশ্বকাপ ট্রফিটাও? সোনায় সোহাগা!