পবিত্র রমজানে ১০০ টাকায় ব্যাগভর্তি সবজি

ব্যাগভর্তি সবজি। ব্যাগে আছে আধা কেজি শসা, আধা কেজি বেগুন, ৪টি লেবু, গাজর ৩৫০ গ্রাম, ১০০ গ্রাম ধনেপাতা, পেঁয়াজ ১ কেজি ও ২৫০ গ্রাম কাঁচা মরিচ। গতকাল শনিবার এসব সবজিভর্তি একটি ব্যাগ ১০০ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে কারওয়ান বাজারে।

পবিত্র রমজান মাসে যাতে বাজারে পণ্যের সংকট তৈরি না হয়, সে জন্য ‘পরিমিত ক্রয় ক্যাম্পেইন’–এর অংশ হিসেবে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়। বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি ও ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি এই কর্মসূচির আয়োজন করে। এতে সহযোগিতা করে ক্ষুদ্র আড়তদার কাঁচামাল মালিক সমিতি (কারওয়ান বাজার)।

এ উপলক্ষে গতকাল দুপুরে কারওয়ান বাজারে সিটি করপোরেশনের কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংসদ মমতাজ বেগম, র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, পরিচালক শমী কায়সার, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন, নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনের চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন, ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির সভাপতি তৌফিক এহসান। অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা এক ব্যাগ করে সবজি কিনে নিয়ে যান।

ক্ষুদ্র আড়তদার কাঁচামাল মালিক সমিতির (কারওয়ান বাজার) সভাপতি মো. ওমর ফারুক বলেন, অনেকে রমজান মাস শুরু হওয়ার ১৫ দিন আগেই পুরো এক মাসের বাজার কিনে নিয়ে যান। এতে পণ্য সরবরাহব্যবস্থার ওপর চাপ পড়ে। আর দাম বেড়ে যায়। তিনি বলেন, জনগণের মধ্যে সচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে তাঁরা প্রতীকী এই কর্মসূচির আয়োজন করেছেন। যাতে ক্রেতারা অনেক দিনের জন্য না কিনে এক বা দুদিনের জন্য বাজার করেন। এতে বাজার স্থিতিশীল থাকবে।

ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতি সূত্র জানায়, ব্যাগে থাকা আধা কেজি শসার দাম ১০ টাকা, আধা কেজি বেগুন ৩০ টাকা, ৪টি লেবু ১২ টাকা, ৩৫০ গ্রাম গাজর ১০ টাকা, ১০০ গ্রাম ধনেপাতা ১০ টাকা, পেঁয়াজ ১ কেজি ২০ টাকা এবং ২৫০ গ্রাম কাঁচা মরিচ ৮ টাকা ধরা হয়েছে। ইফতারে ব্যবহৃত এসব সবজিতে ছয় সদস্যের পরিবারের দুই দিন চলে যাবে।

‘প্রয়োজনের অধিক পণ্য কিনব না, বাজারে পণ্যের সংকট সৃষ্টি করব না’—স্লোগান দিয়ে মাইকিং করে এসব ব্যাগ বিক্রি করা হয়।

মাইকিং শুনে এক ব্যাগ সবজি কেনেন সিটি করপোরেশনের কর্মী মো. ইউনুস। তিনি বলেন, ‘বেশি কিনে লাভ নাই। পচে যায়। এ জন্য দুই দিনের জন্য কিনেছি। লাগলে আবার কিনব।’

মাইকিং শুনে আসা শাহানুর মোল্লা নামের এক ব্যক্তি একে খুব ভালো উদ্যোগ বলে বর্ণনা করেন।

দুই ব্যাগ সবজি কেনা চাকরিজীবী হাসিব আলম বলেন, ‘দাম সাশ্রয়ী মনে হচ্ছে। বাইরে পেঁয়াজের কেজি ২৫-৩০ টাকা, এখানে দেখলাম ২০ টাকায় দিয়েছে।’

ঢাকা মহানগর দোকান মালিক সমিতির (তেজগাঁও অঞ্চল) সদস্য কাজী লালন বলেন, দোকান মালিক সমিতি এসব পণ্য কিনে ব্যাগে ভরে বিক্রি করছে। প্রতি ব্যাগে খরচ হয়েছে ৯০ টাকা। শনিবার ৩০০ ব্যাগ বিক্রি করা হয়েছে। বেলা তিনটার মধ্যেই ব্যাগগুলো বিক্রি হয়ে যায়।