বিমান বিধ্বংসী অস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উ.কোরিয়ার

রবিবার সরকারি বার্তা সংস্থা কেসিএনএ জানিয়েছে, নতুন এ অস্ত্রের উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি পুরো দেশজুড়ে সেগুলো মোতায়েনের আদেশ দিয়েছেন কিম জং উন।

কেসিএনএ অবশ্য নতুন পরীক্ষিত অস্ত্র সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেনি। তবে ন্যাশনাল ডিফেন্স সায়েন্স একাডেমি এটি তৈরি করেছে বলে জানানো হয়েছে।

নতুন বিমান বিধ্বংসী অস্ত্র পরীক্ষার সপ্তাহখানেক আগে পারমাণবিক বোমা বহনে সক্ষম দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষার দাবি করেছিল উত্তর কোরিয়া।

যুক্তরাষ্ট্রের কালো তালিকাভুক্ত উত্তর কোরিয়ার এই প্রতিষ্ঠানটি ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করে বলে অভিযোগ রয়েছে।

গত বছর থেকে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র পদ্ধতির উন্নয়নে মনোযোগ দেয় উত্তর কোরিয়া। এরপর থেকে তাদের অস্ত্র উন্নয়ন চলতে থাকে। সম্প্রতি কিছু প্রযুক্তিগত অগ্রগতির নমুনা দেখিয়ে তারা একটি মধ্যপাল্লার ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ও পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসন থেকে আত্মরক্ষার জন্য এসব কর্মসূচির প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে সেগুলো অব্যাহত রেখেছে দেশটি।