রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির জমায়েত বাড়ছে

79

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি আয়োজিত জনসভায় আসতে শুরু করেছেন দলের নেতাকর্মীরা। আজ রবিবার দুপুর দুইটায় সভার কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল নয়টা থেকেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নেতাকর্মীদের জমায়েত লক্ষ্য করা গেছে।

সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে নেতাকর্মীদের ভিড়। জনসভাস্থলে ঢুকছে খণ্ড খণ্ড মিছিল। নেতাকর্মীদের হাতে দেখা যাচ্ছে নানা রঙ-বেরঙের ও স্লোগান লেখা ব্যানার-ফেস্টুন-প্ল্যাকার্ড।
ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির পাশাপাশি গাজীপুর মহানগর ও নারায়ণগঞ্জ মহানগরসহ আশপাশের জেলা থেকেও জনসভায় যোগ দিচ্ছেন নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ থেকে ছাত্রদলের কর্মীরাও আসছেন জনসভায়।
জানা গেছে, বেলা ১১টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত গান-বাজনা চলবে। গানের মধ্যে থাকবে দেশাত্মবোধক এবং বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবির গান। বেলা দুইটায় আনুষ্ঠানিকভাবে জনসভা শুরু হবে।
জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। সভাপতিত্ব করবেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এতে দলের কেন্দ্রীয় নেতাসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য দেবেন।
এদিকে জনসভায় প্রধান অতিথি করা হয়েছে কারাবন্দি দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে লেখা রয়েছে বেগম খালেদা জিয়ার নাম। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘‘নির্বাচনের আর মাত্র তিন মাস বাকি, এই নির্বাচনে আমারা শক্তভাবে অংশগ্রহণ করতে চায়।’’ শনিবার রয়টার্সকে দেয়া একান্ত সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন।
মির্জা ফখরুল বলেন, রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় আমাদের দাবিগুলো তুলে ধরব। এ দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- নির্বাচনের আগেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি, নির্বাচনকালীন সময়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার এবং নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন।