ভারতের নেতৃত্বাধীন সোলার জোট ওপেক’কে ছাড়িয়ে যাবে

57

ভারতের নেতৃত্বাধীন সোলার জোট ভবিষ্যতে জ্বালানি ব্যবসায়ী জোট ওপেক’কে ছাড়িয়ে যাবে। মঙ্গলবার জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস-এর সঙ্গে আন্তর্জাতিক সোলার জোট (আইএসএ)-র প্রথম বৈঠকের উদ্বোধনকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী এমন ইঙ্গিত দেন। খবর এএফপি’র।
নয়াদিল্লিতে এ সম্মেলনে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘বর্তমানে তেলক্ষেত্রগুলো যে ধরনের ভূমিকা পালন করছে আগামীতে সূর্যরশ্মি এমন ভূমিকা পালন করবে।’
তিনি বলেন, ‘আগামী বছরগুলোতে যখন ২১ শতকের মানবতার কল্যাণের বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে বিশ্ব আলোচনা করবে, তখন আইএসএ’র নাম শীর্ষে থাকবে। আমরা এই আইএসএ ফোরামের মাধ্যমে পরিবেশের ন্যাযতা নিশ্চিত করতে প্রত্যেকে প্রস্তুতি নিয়েছি।’
অর্গানাইজেশন অব পেট্রোলিয়াম এক্সপোর্টিং কান্ট্রিজ বিশ্বের এক তৃতীয়াংশ জ্বালানি তেল উত্তোলন করে। ফলে তারা দশকের পর দশক ধরে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম নিয়ন্ত্রণ করার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী তেলের বাজারে তাদের প্রভাব বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে।
২০১৫ সালে ভারত ভিত্তিক এই জোটের যাত্রা শুরু হয়। এটার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে সোলার পাওয়ার ব্যবহার করে জ্বালানি ব্যয় হ্রাস করা এবং এ লক্ষ্যে ২০৩০ সাল নাগাদ সোলার স্থাপনা ও অবকাঠামো গড়ে তুলতে ট্রিলিয়ন ডলারের তহবিল গঠনের পদক্ষেপ গ্রহণ।
এ অনুষ্ঠানে গুতেরেস বলেন, ‘ভবিষ্যতের জন্য কি করা প্রয়োজন আন্তর্জাতিক সোলার জোট প্রকৃতপক্ষে সেটাই করছে।’ কেননা, এ পর্যন্ত কেবলমাত্র এক ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সারা বিশ্বের জলবায়ুর ব্যাপক পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এতে করে ঘূর্ণিঝড় ও সমুদ্রের পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি ভয়াবহ তাপদাহ, দাবানল ও বন্যা হতে দেখা যাচ্ছে।
জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ভারতে ১শ’ ৩০ কোটি লোক বিশেষভাবে ঝুঁকির মুখে রয়েছে।
সদস্য দেশ, ব্যাংক, উন্নয়ন তহবিল, কর্পোরেট সেক্টর ও সুশীল সমাজ গ্রুপের অংশগ্রহণে আইএসএ’র প্রথম সম্মেলন শুক্রবার পর্যন্ত চলার কথা রয়েছে।