অস্ট্রেলিয়া থেকে প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গেছে এক ধরণের ক্যান্সার, কিন্তু কীভাবে?

58

ক্যান্সার এমন একটি ভয়াবহ রোগ যা দেখা দিলে ধরেই নেওয়া হয় মানুষটি বেশিদিন বাঁচবেন না।  কিন্তু অস্ট্রেলিয়া থেকে এক ধরণের মারাত্মক ক্যান্সার প্রায় নির্মূল করে দেওয়া হয়েছে। সে ক্যান্সারটি হলো সার্ভাইক্যাল ক্যান্সার। আশা করা হচ্ছে আগামী ২০ বছরের মাঝে ক্যান্সারটি সম্পূর্ণরূপে দূর হয়ে যাবে সে দেশ থেকে।

এ সংক্রান্ত গবেষণার ফল প্রকাশিত হয় দি ল্যান্সেট পাবলিক হেলথ জার্নালে।  একটি কম্পিউটার মডেলের সাহায্য নিয়ে ২০১৫ সাল থেকে ২১০০ সালের মাঝে সার্ভাইক্যাল ক্যান্সারের ঝুঁকি মাপা হয়। সে দেশে হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস (এইচপিভি) ভ্যাকসিনেশন (যা সার্ভাইক্যাল ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে সক্ষম), সার্ভাইক্যাল স্ক্রিনিং এবং রোগটির ইতিহাসের ওপর ভিত্তি করে কাজ করে ওই মডেলটি।

বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় প্রতি লাখে সাতজন নারীর সার্ভাইক্যাল ক্যান্সার দেখা যায়। কিন্তু ২০২০ সাল নাগাদ তা ছয়ে নেমে আসতে পারে। ফলে তা ওই দেশে ‘দুর্লভ ক্যান্সার’ হিসেবে বিবেচিত হবে। ২০১৩৫ সাল নাগাদ তা চারে নেমে আসবে। আর ২০৬৬ সাল নাগাদ লাখে একজন বা তারও কম নারীর মাঝে এই ক্যান্সার দেখা দেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

অস্ট্রেলিয়া হলো পৃথিবীর প্রথম দেশ যেখানে সরকারিভাবে সার্ভাইক্যাল ক্যান্সারের টিকা দেওয়া হয়েছে ১২-১৩ বছর বয়সী কিশোর কিশোরিদের।  ২০০৭ সাল থেকে মেয়েদের এবং ২০১৩ সাল থেকে ছেলেদেরকেও দেওয়া হচ্ছে এই টিকা।  এ ছাড়া সে দেশের ক্যান্সারটির স্ক্রিনিং টেস্ট চালু করার কারণেও এর প্রকোপ কমে গেছে।  এ কারণেই সে দেশ থেকে এই ক্যান্সারটি নির্মূল হবার পথে।  তাদের পথে হাঁটা শুরু করেছে যুক্তরাজ্যশ আরও কিছু দেশ।