কনকনে শীতকে উপেক্ষা করে প্রচারে ব্যস্ত আসাদুজ্জামান নূর

50

৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী-২ আসনের মহাজোটের প্রার্থী সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। কনকনে শীতকে উপেক্ষা করে প্রচারে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি ও তার সমর্থকরা। প্রচারণায় এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে সামনে অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করার কথা জানাচ্ছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত এই প্রার্থী।

জানা গেছে, প্রতিদিনই সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রতিটি ইউনিয়নের পাড়া মহল্লায় উঠান বৈঠক গণসংযোগসহ পথসভা করে নৌকা মার্কায় ভোট চাইছেন আসাদুজ্জামান নূর। ওই আসনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও তার পক্ষে দলে দলে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট চাইছেন।

নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে গত এক সপ্তাহ থেকে নির্বাচনী প্রতিটি এলাকায় চষে বেড়াচ্ছেন আসাদুজ্জামান নূর। গত তিনদিনে তিনি সদরের কুন্দপুকুর,পলাশবাড়ী, লক্ষীচাপ, পঞ্চপুকুর, কচুকাটা, চাপড়া, ইটাখোলা, সোনারায়,গোড়গ্রামসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ চালিয়ে ভোট চান। এ ছাড়া তিনি লক্ষীচাপ ইউনিয়নের কালিমন্দির, সহদেব বড়গাছা গাইবান্ধাপাড়া, মারুটারী, নিমতলী, কাছারী, চৌরঙ্গীসহ বিভিন্ন এলাকায় উঠান বৈঠক গণসংযোগ ও পথসভায় অংশগ্রহণ করেন।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘আগে এই এলাকায় মঙ্গা ছিল। এখন মঙ্গা বলতে কিছু নেই। হয়েছে কৃষি পরিবর্তন। মানুষের কাজের যথেষ্ট ব্যবস্থা হয়েছে। হয়েছে উত্তরা ইপিজেট। বাড়ি বাড়ি বিদ্যুৎ। গ্রামে গঞ্জে পাকা রাস্তা। সারের জন্য হাহাকার নেই। ১০০ শয্যা থেকে ২৫০ শয্যা হাসপাতাল হয়েছে। একটি উন্নত স্টেডিয়াম তৈরি হয়েছে। মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হয়েছে। ’

এ সময় যারা দেশের জন্য কাজ করেছেন তাদেরকে ভোট দেওয়ারও আহ্বান জানান আসাদুজ্জামান নূর।

এদিকে প্রতিদিন নৌকা মার্কার গণসংযোগে হাজার হাজার সমর্থকদের সমর্থনে উল্লাসে মেতে উঠেন ভোটাররা। আসাদুজ্জামান নূর প্রসঙ্গে নীলফামারী-২ আসনের ভোটাররা বলেন, ‘তিনি সাদা মনের আলোকিত মানুষ। এত ভালো নেতা আমরা পেয়েছি অবশ্যই আমরা নৌকা মার্কায় ভোট দিব। আমরা সংস্কৃতি মন্ত্রীর অবদানে রাস্তাঘাট, কালভার্ট, ব্রিজ, বিদ্যুৎ, স্কুল কলেজ, মাদ্রাসা, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো পেয়েছি। নূরের বিকল্প নূর। তাই নৌকার বিকল্প নেই।’