ঐক্যফ্রন্টের নেতারা নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে মাস্তানি করে গেছেন বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে এ মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, নির্ধারিত বৈঠক বয়কট নয়, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা ইসির সঙ্গে মাস্তানি করে গেছেন।

এইচ টি ইমাম জানান, বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা নারায়ণগঞ্জের এক পুলিশ কর্মকর্তাকে ‘জানোয়ার’ বলে সম্বোধন করেন। এসময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) তাদের সংযত হয়ে কথা বলার অনুরোধ জানালে ড. কামাল হোসেন সিইসির সঙ্গে টেবিল চাপড়ে কথা বলেন।

তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বৈঠকটি বয়কট নয়, ইসির সঙ্গে এক প্রকার মাস্তানি করে গেছেন। এর আগে দুপুর ১২টার দিকে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ ১০ নেতা সিইসি কে এম নূরুল হুদাসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন। দেড় ঘণ্টার মধ্যে তারা বৈঠক বয়কট করে বেরিয়ে আসেন।

বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সুব্রত চৌধুরী ও মোস্তফা মহসীন মন্টু। আর নির্বাচন কমিশনের পক্ষে ছিলেন, সিইসি কেএম নুরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, রফিকুল ইসলাম ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ

বৈঠক থেকে বের হয়ে বিএনপির মহাসচিব ও ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনী পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি ঘটেছে। গতকাল (সোমবার) থেকে অবস্থার বেশি অবনতি হতে শুরু করেছে। কিন্তু প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) এই অভিযোগ আমলে নিচ্ছেন না। নির্বাচন কমিশন ও সরকার যৌথভাবে বিরোধী জোটের নির্বাচনী কার্যক্রমে বাধা দিচ্ছে। কিন্তু আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দেবো না।