বিশিষ্ট শিল্পপতি ও দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান বলেছেন, আমাদের খেলাপি ঋণ ও ক‍ু-ঋণ পদ্ধতি বন্ধ করা গেলে দেশের অনেক মঙ্গল হবে। দেশের ব্যবসায়ীরা অনেক উদ্বুদ্ধ হবেন। কু-ঋণ বন্ধ করা গেলে ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণ ১ শতাংশে নেমে আসবে।

আজ বুধবার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের (এসবিএসি) মহিলা শাখার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বসুন্ধরা গ্রুপ চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।

খেলাপি ঋণ কমাতে ব্যাংকারদের উদ্দেশ্যে আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, আমি আপনাদের একটিই অনুরোধ করবো, যাকে ঋণ দেবেন তার সর্ম্পকে খোঁজ খবর নেবেন। কারণ আজকে খেলাপি ঋণের দায় ভালো ঋণ গ্রহীতাদের উপর এসে পড়ছে।

তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন আগে সুদের হার ছিল ১৫-১৬ শতাংশ। এখন হয়তো সেটা ৯-১০-১১ শতাংশে নেমে এসেছে।

এসবিএসি ব্যাংকের এই শাখার নামকরণ মহিলা শাখা করায় অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছেন জানিয়ে আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, আমাদের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকই নারী। দেশে লাখ লাখ পুরুষ উদ্যোক্তা রয়েছে। আমি আশা করবো অনুরূপভাবে সাউথ বাংলা ব্যাংকের এ শাখা নারী উদ্যোক্তা তৈরির একটি উদাহারণ হয়ে থাকবে।

বসুন্ধরা গ্রুপ চেয়ারম্যান বলেন, যত বেশি সংখ্যক নারী উদ্যোক্তা তৈরি হবে, দেশ ততো এগিয়ে যাবে। আমরা সবাই দেশের জন্য কাজ করছি। আজ দেশে ৬০টি ব্যাংক হওয়ার কারণে অর্থনীতির অনেক উন্নতি হয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে সবচেয়ে বড় অবদান রাখছে ব্যাংকিং সেক্টর।

‘বিগত দিনের তুলনায় নারীরা অনেক এগিয়েছেন। পড়লেখা, চাকরি, বিশেষ করে ব্যাংকের চাকরিতে নারীরা এখন অনেক এগিয়ে রয়েছে। বিদেশে অধিকাংশ ব্যাংকের সিইও নারী। আমি আশা করবো এদেশেও অনুরূপ দৃষ্টান্ত স্থাপিত হবে’।

আহমেদ আকবর সোবহান বলেন, ট্রাস্ট ব্যাংকের একজন নারী উপব্যবস্থাপনা পরিচালকের ধ্যান, ধারণা, চিন্তা চেতনায় আমি ইমপ্রেসড। সাউথ বাংলা ব্যাংকও এক সময় নারীদের অনেক বড় দায়িত্ব দেবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসবিএসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এসএম আমজাদ হোসেন উপস্থিত সবাইকে সাউথ বাংলা ব্যাংকের সঙ্গে ব্যবসা করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন বলেন, অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে, গত কয়েক বছরে আমাদের দেশের ব্যাংকগুলো একটি দুর্নামের মধ্যে পতিত হয়েছে। যেটি এদেশে কখনোই ছিল না। আমরা আশা করবো যে ব্যাংক বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান উদ্বোধন করলেন, সে ব্যাংক যেন কোনোদিন দুর্নামের মধ্যে না পড়ে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম, এসবিএসি ব্যাংকের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক তারিকুল ইসলাম চৌধুরী, বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এসবিএসি ব্যাংকের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোস্তফা জালাল উদ্দিন, সভাপতির বক্তব্য রাখেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম ফারুক। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বসুন্ধরা মহিলা শাখার ব্যবস্থাপক শাহনাজ পারভীন।

২০১৩ সালে যাত্রা শুরু করা চতুর্থ প্রজন্মের সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংকের ৭৪তম এ শাখাটিই একমাত্র মহিলা শাখা হিসেবে কার্যক্রম শুরু করলো।