আম উৎপাদন বৃদ্ধি পাচ্ছে নওগায় । বিশেষ করে জেলার পোরশা, সাপাহার, পত্নীতলা, নিয়ামতপুর উপজেলায় নতুন নতুন আম বাগান গড়ে উঠছে। কৃষকরা তাঁদের ধানের জমিতে এসব বাগান গড়ে তুলছেন। ধান উৎপাদনের চেয়ে আম লাভজনক হওয়ায় তাঁরা আমের বাগান গড়ে তুলতে বেশী আগ্রহী হয়ে উঠছেন।

নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, চলতি মওসুমে জেলায় মোট ১৮ হাজার ৬৬৬ হেক্টর জমিতে আম বাগান গড়ে উঠেছে। এসব বাগানে এ বছর মোট আম উৎপাদিত হয়েছে গড়ে প্রতি হেক্টরে ১২ দশমিক ৫০ মেট্রিক টন হিসেবে মোট ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩২৫ মেট্রিক টন। যার বর্তমান স্থানীয় বাজার মূল্য ৯৩৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মনোজিত কুমার মল্লিক জানিয়েছেন, জেলা উপজেলা ভিত্তিক আম বাগানের পরিমাণ হচ্ছে নওগাঁ সদর উপজেলায় ‘৪১৫ হেক্টর, রানীনগর উপজেলায় ২০ হেক্টর, আত্রাই উপজেলায় ১১৬ হেক্টর, বদলগাছি উপজেলায় ৩৩৫ হেক্টর, মহাদেবপুর উপজেলায় ৩৬০ হেক্টর, পত্নীতলা উপজেলায় ২ হাজার ২শ’ হেক্টর, ধামইরহাট উপজেলায় ৬৭০ হেক্টর, সাপাহার উপজেলায় ৪ হাজার হেক্টর, পোরশা উপজেলায় ৯ হাজার ২শ’ হেক্টর, মান্দা উপজেলায় ৪শ’ হেক্টর এবং নিয়ামতপুর উপজেলায় ৯৫০ হেক্টর জমিতে।

জেলায় উৎপাদিত আমের জাতের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, ল্যাংড়া, গোপালভোগ, খিরসাপাত, নাগ ফজলী, আ¤্রপালী, আশ্বিনা, ফজলী, কুমড়াজ্বালী এবং হাড়িভাঙ্গা। কৃষি বিভাগের মতে নওগাঁ জেলায় উৎপাদিত আমের মিষ্টতা এবং স্বাদ দুই-ই বেশী।

চলতি বছর নওগাঁয় স্থানীয় বাজার অনুযায়ী প্রতি কেজি আম গড়ে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সেই হিসেবে এক মেট্রিক টন আমের বাজার মূল্য ৪০ হাজার টাকা। এ বছর জেলায় মোট আম উৎপাদিত হয়েছে ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩২৫ মেট্রিক টন। বাজার মূল্য অনুযায়ী উৎপাদিত আমের মূল্য ৯৩৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা।