নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতির উন্নতি না ঘটায় সরকারের সিদ্ধান্তের সঙ্গে মিল রেখে দেশের রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানাগুলোও ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।

সংশ্লিষ্ট শিল্প মালিক সমিতি ও শিল্প পুলিশকে জানিয়ে অফিস খোলা রাখা যাবে।

শুক্রবার তৈরি পোশাক রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ ও বিকেএমইএর যৌথ বিবৃতিতে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

বিকেএমইএর সভাপতি একেএম সেলিম ওসমান ও বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক তাতে স্বাক্ষর করেন।
বিবৃতিতে বলা হয়, “মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সরকারের ছুটির সঙ্গে মিল রেখে বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএর সদস্য প্রতিষ্ঠানসমূহ আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

“তবে এ সময়ের মধ্যে বেতন দেওয়ার জন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা রাখার প্রয়োজন হলে স্ব স্ব অ্যাসোসিয়েশন (বিজিএমইএ/বিকেএমইএ) এবং শিল্প পুলিশকে অবহিত করতে হবে।”

রপ্তানি ক্রয়াদেশ ক্রয়াদেশ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম তৈরিসহ জরুরি প্রয়োজনে প্রশাসনের অনুমতিসাপেক্ষে বৃহস্পতিবার ঢাকা, চট্টগ্রাম ও গাজীপুর এলাকায় ২৬টি কারখানা চালু ছিল।
এদিন করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়ে ষাটোর্ধ্ব এক পোশাক কারখানা মালিকের মৃত্যু হয়েছে।

সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে দেশে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নতুন নতুন এলাকায় সংক্রমিত রোগীর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ ছুটি ও ঘরে অবস্থানের সময় আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়েছে সরকার। পাশাপাশি সন্ধ্যা ৬টার পর ঘরের বাইরে অবস্থানের উপর কড়া নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।