লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ১৮টি ভারতীয় গরু আটক করে পরে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে ওই উপজেলার দোয়ানী পুলিশ ফাঁড়ি থেকে আটক ভারতীয় গরু গুলো ছেড়ে দেয় ফাঁড়ি ইনচার্জ রেজাউল করিম। এর আগে রোববার মধ্য রাতে তিস্তা ব্যারাজের পাশে সীমান্ত বাজার থেকে গরু গুলো আটক করে ওই ফাঁড়ি পুলিশ।
দোয়ানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন, সীমান্ত বাজার এলাকায় বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ভারতীয় গরু পার করে জমা করা হচ্ছে এমন একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই এলাকায় অভিযোন চালায় পুলিশ। অভিযানে নিজ গড্ডিমারী গ্রামের জিন্নাত আলীর পুত্র গরু ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলামের গরুর ট্রলি থেকে ১৮টি ভারতীয় গরু আটক করা হয়।
যার বাজার মুল্য প্রায় ২০ লক্ষ টাকা হবে। গরু গুলো উদ্ধারের সময় বা পরে কোনো বৈধ কাগজ পত্র দেখাতে পারে নাই গরুর মালিক। সোমবার দুপুরে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষ সাথে কথা বলে গরু গুলো ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে গরু ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলামের দাবী তিনি গরু গুলো পার্শ্ববতী দইখাওয়া হাট থেকে ক্রয় করেছেন।
হাতীবান্ধা থানার ওসি এরশাদুল আলম বলেন, গরু গুলোর মালিক হাটে ক্রয়ের রসিদ দেখিয়েছেন। তবে কাস্টমসের কোনো কাগজপত্র না দেখায় উর্দ্ধতন কতৃপক্ষ সাথে কথা বলে গরু গুলো আপাতত একজনের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।
লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানা বলেন, বিষয়টি আমি জানি। পুলিশের কাজ পুলিশকে করতে দেন। আমরা বিষয়টি দেখতেছি।