জয়পুরহাট জেলায় ৩৩০ হেক্টর জমিতে মরিচের চাষ

জয়পুরহাট জেলায় চলতি ২০২১-২০২২ রবি মৌসুমে শীতকালীন  মরিচের চাষ হয়েছে ৩৩০ হেক্টর জমিতে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১০ হেক্টর অতিরিক্ত।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, জয়পুরহাট জেলায় চলতি ২০২১-২০২২ রবি মৌসুমে শীতকালীন  ৩২০ হেক্টর জমিতে মরিচ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে চাষ হয়েছে  ৩৩০ হেক্টর জমিতে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১০ হেক্টর বেশি। এতে কাঁচা মরিচের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে  ৫৮০ মেট্রিক টন।

এ ছাড়াও জেলায় এবার গ্রীষ্মকালীন খরিপ-১ মৌসুমে ১৮৫ হেক্টর জমিতে মরিচের চাষ হয়।

যেখানে মরিচের উৎপাদন হয়েছিল ৩৪০ মেট্রিক টন মরিচ।  বর্তমান বাজারে পাওয়া যাচ্ছে চলতি ২০২১-২০২২  মৌসুমের  মরিচ। গ্রীষ্মকালীন মরিচের সঙ্গে শীতকালীন মরিচ বাজারে আসতে শুরু করার ফলে দাম কিছুটা কমেছে বলে জানায় স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

জেলা শহরের নতুনহাট, মাছবাজার ও  ক্ষেতলাল উপজেলার বটতলী বাজার ঘুরে দেখা যায় কাঁচা মরিচ পাইকারী বিক্রি হচ্ছে প্রকার ভেদে ৪৪ থেকে ৫০ টাকা কেজি।  যদিও জেলা শহরের খুচরা বাজারে প্রকার ভেদে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে কাঁচা মরিচ।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের  উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো: শফিকুল ইসলাম জানান, আবহাওয়া ভালো থাকায় এবার মরিচের আবাদ ভালো হয়েছে। বাজারে আগাম জাতের মরিচের আমদানি  হওয়ায় দাম একটু কমেছে  বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 

facebook sharing button
twitter sharing button
messenger sharing button
whatsapp sharing button
sharethis sharing button